Admin

Admin

Processing of Conservation

প্রথমতঃ যেকোন খাবার ফ্রিজে রাখলে যেমন টেস্ট কমে যায়, তেমনি আমের টেস্ট ও কমে যায়। আম নিয়ে গিয়ে, ঘরে নরমালি রেখে দিলে কয়েকদিনের মধ্যে পেকে যায়। এই আমের টেস্ট সেরা। এর পরেও কিছু আম ফ্রিজে রাখতে হয়।

ফ্রিজের নরমালে সংরক্ষনঃ 
ফ্রিজে আম সংরক্ষণের সবচেয়ে ভাল পদ্ধতি বের করার জন্য আমরা বিভিন্ন পদ্ধতিতে আম সংরক্ষণ করেছিলাম। নিম্নোক্ত পদ্ধতিতে সবচেয়ে বেশী দিন ( প্রায় ১০-১৫ দিন) ফ্রিজের নরমালে আম সংরক্ষণ করা যায়ঃ 
১। যত দ্রুত সম্ভব কুরিয়ার থেকে আম নিয়ে আসুন। কোন আম পঁচে বা নষ্ট হয়ে গেলে সরিয়ে ফেলুন। 
২। আমগুলোকে যতদূর সম্ভব আলতো করে নাড়াচাড়া করতে হবে। আঘাত লাগানো যাবে না। কোন জায়গায় আঘাত লাগলে সেই জায়গা পঁচে যাবে।
৩। ভাল আমগুলোকে ফ্যানের বাতাসে শুকিয়ে নিন। গরমে আম ঘেমে গেলে বা কোন পানি লাগলে আম পঁচে যায়। 
৪। এক আমের রস অন্য আমকে পঁচিয়ে দিতে পারে। এইজন্য একটি আমের সাথে অন্য আম যেন লেগে না থাকে। ফ্রিজে রাখার আগে পেপারের ছোট ছোট কাগজে প্রতিটি আম মুড়িয়ে নিন। 
৫। মিষ্টির প্যাকেটে/ কাগজের প্যাকেটে/ কাগজের শপিং ব্যাগে পেপারে মুড়ানো আমগুলো ঢুকিয়ে ফ্রিজে সংরক্ষণ করুন। 
৬। ফ্রিজের যে জায়গাগুলোতে পানি জমতে পারে/ গড়িয়ে পরে সেইজায়গাগুলো আভোয়েড করুন। 
৭। তিন চারদিন পরপর চেক করে দেখুন, কোন আম পঁচে গেলে সরিয়ে ফেলুন।

ফ্রিজের ডিপে সংরক্ষনঃ 
ডিপে কাচা আম রাখা যাবে না। অনেকদিন পরে খাওয়ার ইচ্ছে থাকলে পরিক্ষামুলকভাবে কিছু পাকা আম রেখে দিতে পারেন। এছাড়াও জুস করে ডিপ এ সংরক্ষন করতে পারেন।