Admin

Admin

Some Question & Answer

#আপনাদের_সম্পর্কে_বিস্তারিত_বলুন। 
উত্তরঃ  ভেজাল ও কেমিক্যাল মুক্ত খাবার সরবরাহের লক্ষ্যে ২০১০ সালে কিনইয়ার্ডস যাত্রা শুরু করে।
আমরা খাটি মধু, গুড়, রেসটুরেন্ট খাবার এবং ক্যামিকেল মুক্ত আম সরবরাহ করে থাকি। কিনইয়ার্ডস সম্পর্কে চ্যানেল ২৪ এর রিপোর্ট 

https://www.youtube.com/watch?v=jRs0_1wAC4Y&feature=youtu.be



#
আপনারা_কোন_কোন_আম
 সরবরাহ করেন?
উত্তরঃ আমরা চাপাইয়ের আমের মধ্যে সব চেয়ে ভালো ৪ জাতের আম সরবরাহ করি। খিরসাপাত/হিমসাগর, আমের রাজা ল্যাংড়া, সুরমা ফজলী এবং আমরুপালি। সেই সাথে আমরা এই বছর থেকে রংপুরের হাড়িভাঙ্গা আম সরবরাহ করবো ইনশাআল্লাহ।

#আপনারা_কোন_কোন_কুরিয়ার_ব্যবহার করেন?
উত্তরঃ Omex, AJR, Sundarban.

#আপনাদের_সার্ভিসটি প্রিপেইড না পোস্ট পেইড? 
উত্তরঃ আমাদের অন্যান্য প্রডাক্ট পোস্টপেইড বা ক্যাশ অন ডেলিভারি দিই, কিন্তু আম পচনশীল হওয়ায় ফেরত নেওয়া যায় না, তাই আমের জন্য আগেই টাকা পাঠাতে হবে। (প্রিপেইড সার্ভিস)

#আম_কি_বাসায়_পৌছে দেওয়া হয় নাকি কুরিয়ারে গিয়ে নিয়ে আসতে হয়?
উত্তরঃ আম অফিস ডেলিভেরি নিতে হবে। আপনার নিকটস্থ কুরিয়ারে পার্সেল সার্ভিস চালু থাকলে আমরা সেখানে আম পৌছিয়ে দিতে পারবো। সেখান থেকে আপনাকে আম সংগ্রহ করতে হবে।

#আমি_কি বিদেশ হতে অর্ডার করতে পারবো? 
উত্তরঃ আপনি দেশে বা বিদেশে যেখানেই থাকুন না কেন, আমাদের কাছে অর্ডার করলে দেশের যেকোনো জেলা সদরে কুরিয়ারের মাধ্যমে আমরা আপনার প্রিয়জনের কাছে চাঁপাই নবাবগঞ্জের অর্গানিক আম পৌছিয়ে দিব।

#আমের_দাম কেমন? 
উত্তরঃ আমের দাম আমরা এমনভাবে কমিয়ে রাখি যেন কুরিয়ার, প্যাকেজিং চার্জসহ আপনার আল্টিমেট মুল্য বাজার মুল্যের সমান অথবা কম হয়। এছাড়াও অনেক সময় আমরা ডিসকাউন্ট দিয়ে থাকি।

#সর্বোনিম্ন_কতো কেজি অর্ডার করা যাবে?
উত্তরঃ সর্বোনিম্ন ১০ কেজি হতে ৫ এর গুণিতক যে কোন পরিমান আম অর্ডার করা যাবে। আমরা সর্বনিম্ন ১০ কেজি আমের অর্ডার নিয়ে থাকি। কারন কুরিয়ার সার্ভিসগুলো ১০ কেজির কম পাঠালেও ১০ কেজির সার্ভিস চার্জ নিবে। এছাড়াও আমাদের কাছে ১৫ কেজি ও ২২ কেজির অর্ডার করতে পারবেন।

.............................. 
#কতটুকু_বিশ্বাস যোগ্য ?? 
আপনার এই প্রশ্নের সাধারন উত্তর হতে পারে যে আমরা ১০০% বিশ্বাসযোগ্য । কিন্তু আমরা সেভাবে উত্তর দিতে চাই না, কারন আমরা বললেই আপনি বিশ্বাস করবেন না। একজন মানুষ কিছু বিশ্বাস করে সাধারনত কয়েকটি উপায়ে।
যেমনঃ
১। আমাদের পেজে অন্য কাস্টমারের ফিডব্যাক দেখে
২। বাংলাদেশের সকলের বিশ্বাসযোগ্য হাই-প্রোফাইলধারী আমাদের কিছু কাস্টমার আছে। আপনি চাইলে আমরা আপনাকে তাদের ফেসবুক লিঙ্ক দিতে পারি। আপনি আমাদের ব্যাপারে জানতে চেয়ে উনাদের ইনবক্সে এসএমএস দিয়ে রাখতে পারেন। 
৩। আপনার পরিচিত বা বিশ্বাসযোগ্য কেও আমাদের ব্যাপারে জানলে তার কাছ থেকে তথ্য নিয়ে
৪। অথবা প্রথমে ছোট্ট কোন অর্ডার করে আমাদের টেস্ট করে নিতে পারেন।

#আমি_যদি_৫_প্রজাতির_আম ৫ কেজি করে অর্ডার করি তাহলে নিতে পারবো?
Ans: আমরা চাপাইয়ের আমের মধ্যে সব চেয়ে ভালো ৪ জাতের আম সরবরাহ করি। সব জাতের আম এক সাথে পরিপক্ক হয় না। তাই সব জাতের আম এক সাথে দেওয়া সম্ভব না। একটির শেষ হয় তারপরে অন্য আমগুলো নামানোর মত পরিপক্ব হয়। তাই অর্ডারগুলো ১ সপ্তাহ পরপর একটার পর একটা যাবে। 
ঝামেলা কমাতে সব আমের একসাথে অর্ডার করতে পারবেন, আমরা আম পরিপক্ক হওয়া সাপেক্ষে একটার পর একটা সরবরাহ করব। 

আম সরবরাহের সম্ভাব্য সময়সীমাঃ ১। ক্ষীরসাপাত/হিমসাগরঃ ৮ জুন-১৫ জুন ( ঈদের পরে ৭ দিন ) ২। ল্যাংড়াঃ ১৫ জুন-২২ জুন ( ৭ দিন) ৩। হাড়িভাঙ্গাঃ ১৫ জুন-২২ জুন ( ৭ দিন) ৪। সুরমা ফজলীঃ ২৩ জুন- ৩০ জুন ( ৭ দিন) ৫। আম্রপলিঃ ১ জুলাই- ১৩ জুলাই ( ১৩ দিন )
.........................................

#কুরিয়ার_সার্ভিসের_মাধ্যমে_নেওয়া_ঝামেলাপূর্ন, তাহলে কেন নিবো আপনাদের আম? 
Ans: 
যদিও আমাদের অর্ডার করে কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে আম নেয়াকে অনেকে ঝামেলাপূর্ণ মনে করেন, তবুও আপনজনদের ফ্রেশ আম খাওয়ানোর জন্য এর বিকল্প আর কি হতে পারে? কারন আম দ্রুত পচনশীল একটি ফল। পূর্ণ বয়স্ক আম স্বাভাবিকভাবে গাছ থেকে নামানোর ৫-৭ দিনের মধ্যে পেঁকে যায়। একজন ব্যবসায়ী কোন শহরে ১০০ মন আম নিয়ে এসে তো ৫-৭ দিনে বিক্রি করতে পারেন না ফলে ফরমালিন দিয়ে সংরক্ষণ করেন। আবার কাস্টমার পাঁকা, রং ভাল আম খোঁজেন, ফলে আবার কার্বাইড ও বিষাক্ত রং মিশিয়ে পাঁকান। এই বিষাক্ত আম নিশ্চয়ই আপনি আপনার সন্তানকে খাওয়াবেন না। 
আমরা আপনার অর্ডার কনফার্ম হওয়ার পরে গাছ থেকে আম নামাই এবং ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কুরিয়ার করি। পরবর্তী ২-৩ দিনের মধ্যে আপনি আম পেয়ে যাচ্ছেন। পাঁকার জন্য আর ২-৩ দিন সময় হাতে থাকে। ফলে ফরমালিন বা কার্বাইড দেয়ার প্রয়োজন হয় না।
১। যেহেতু চাঁপাই থেকে কুরিয়ার করা হচ্ছে সুতরাং আপনি নিশ্চিত হতে পারবেন এগুলো চাপাইয়ের আম , বাজারে কিনলে আপনি নিশ্চিত হতে পারবেন না, চাপাইয়ের আম, না সাতক্ষিরার আম না স্থানীয় কোন আম।
২। আমাদের আম সাস্থ্যসম্মত। 
৩। সব ধরনের কেমিক্যাল মুক্ত (কেমিক্যাল দেয়ার প্রয়োজনই হয় না) কারন আম পাড়ার ৩-৪ দিনের মধ্যেই আপনার কাছে পৌঁছে যায়।
অন্যদিকে বাজারের আমে কেমিক্যাল দিতে বাধ্য হয়, কারন গাছ থেকে নামানোর পরে তাদের বিক্রি করতে সময় লাগে, আর অনেক কাস্টমার দেখতে সুন্দর ও ভাল রঙ এর আম চান।

নিরাপদ খাবার খান, সুস্থ থাকুন। (কিনইয়ার্ডস) 
...........................

#আমাদের_আমের_বৈশিষ্টসমূহঃ-
আমাদের আমের বৈশিষ্টসমূহঃ-
১। সরাসরি নিজেদের বাগান থেকে বাছাইকৃত আম।
২। কোন ধরনের কেমিক্যাল ব্যবহার করা হয় না।
৩। গাছে আম পাকা শুরু হবার সময় সংগ্রহ করা হয়।
৪। আমগুলো পরিপক্ব।
৫। ১০০% ক্ষতিকর কেমিক্যাল মুক্ত আম।
৬। ৪ টির বেশী নষ্টতে ক্ষতিপুরন।
৭। সারাদেশে ৪ দিনে ডেলিভেরি।

এছাড়া যেহেতু চাঁপাই নবাবগঞ্জ থেকে কুরিয়ার করা হচ্ছে, সেহেতু আপনি নিশ্চিত এগুলো চাঁপাই নবাবগঞ্জের আম। 
নিরাপদ খাবার খান, সুস্থ থাকুন। (কিনইয়ার্ডস)
..............................
#আমের_পরিপক্বতা_কিভাবে বুঝবেন? 
উত্তরঃ আমরা আমের পরিপক্কতা নিশ্চিত করতে আম কেটে কেটে দেখি, পরিপক্ক হলে গাছ থেকে নামানোর ৫-৭ দিন পরে আম ন্যাচারালি পেকে যাবে। আর ৩-৫ দিনের মধ্যে আপনার কাছে পৌছে যাচ্ছে, তাই কার্বাইড দিয়ে পাকানোর কোন প্রয়োজনই নেই। হিমসাগর আম পেকে গেলেও অনেক সময় চোচা সবুজ দেখায়। তাছাড়া আম পাকলে যে ফ্লেভার আসে তাতেই বুঝা যায়, আম ন্যাচারাল কিনা!

...................................

#প্যাকেজ প্রসেসিং : 
পেমেন্ট কনফার্ম হওয়ার পরে, ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই গাছ থেকে টাটকা আম নামিয়ে অর্ডারকৃত প্যাকেজটি তৈরি করা হবে এবং কুরিয়ার করা হবে আপনার জেলা সদরের উদ্দেশ্যে । পণ্য ডেলিভেরির সম্ভাব্য তারিখ ও স্থান (কুরিয়ার অফিসের ঠিকানা ) sms অথবা কল করে আপনাকে জানিয়ে দেওয়া হবে।

#ডেলিভেরি নেয়াঃ 
অর্ডার কনফার্ম করার 2-4 দিনের মধ্যে আমের ঝুড়ি পৌঁছে যাবে আপনার নিকটবর্তী কুরিয়ারে। কুরিয়ার থেকে আপনাকে জানাবে সেখান থেকে ডেলিভারি নিতে হবে। ডেলিভেরি নেয়ার পর আমাদের জানাবেন প্লিজ।

- ধন্যবাদ